Wednesday, 24 December 2014

কয়েকটি খুদে হাস্যরস

হতাশাবাদীদের কাছ থেকে টাকা ধার করো। কারণ তারা ফেরত পাওয়ার আশা করবে না।

ভুল বলো, নইলে বুঝতে পারবে না, সবাই তোমার কথা শুনছে কি না।

সব সময় মনে রেখো, তুমি অন্য রকম। বাকি সবার মতো!

পৃথিবীতে তিন ধরনের মানুষ আছে। এক ধরনের মানুষ গণনা করতে পারে,
আরেক ধরনের মানুষ পারে না।


আহা! চুরি কোরো না। রাজা মশাই প্রতিযোগী পছন্দ করেন না।

দুটি কথা বলার ছিল। প্রথম কথাটা হলো, দ্বিতীয় কথাটা খুবই গোপন—বলা যাবে না!

আছাড় খাওয়া খুবই মজার একটা ব্যাপার, যদি সেটা আমার বেলায় না ঘটে।

ব্যাংক তোমাকে তখনই টাকা ঋণ দেবে, যখন জানবে তোমার ঋণ না নেওয়ার মতো যথেষ্ট টাকা আছে।

জীবনের প্রথম দুই বছর মা আমাকে হাঁটতে আর কথা বলতে শেখালেন। পরবর্তী ১০ বছর আমাকে যে কথাটা সবচেয়ে বেশিবার বললেন—‘চুপ করে বসে থাকো!’

প্রতিটি পুরুষের সফলতার পেছনে একজন নারী থাকে, প্রতিটি পুরুষের ব্যর্থতার পেছনে আরেকজন নারী থাকে।

প্রথমবার ‘স্কাই ডাইভিং’ করতে চাইলেই যে তোমার একটা প্যারাস্যুট প্রয়োজন হবে, তা নয়। তবে হ্যাঁ, প্রয়োজন হবে—যদি তুমি দ্বিতীয়বার স্কাই ডাইভিং করতে চাও।

কাজ আমার খুব প্রিয়। তাই নিয়মিত অফিসে যাই। বসে বসে অন্যদের কাজ দেখি।

মানুষ ভুল থেকে শিক্ষা নেয় না, এর প্রমাণ হলো, অনেকেই দ্বিতীয়বার বিয়ে করে।

ফেসবুকে আপনার ‘রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস’ দেওয়া আছে ‘ইটস কমপ্লিকেটেড।’ হুম, নিজেকে সান্ত্বনা দেওয়া বন্ধ করে ‘সিঙ্গেল’ লিখুন।

বসের সঙ্গে সব সময় আন্তরিক হও; নয়তো আন্তরিক ভাব দেখাও!

কী ভয়ংকর ব্যাপার! ডাক্তাররা যা করেন, সেটাকে তাঁরা বলেন ‘প্র্যাকটিস’!

মনীষীরা বলেন, নিয়মিত অনুশীলন মানুষকে তার কাজে নিখুঁত করে। আবার তাঁরা এ-ও বলেন, কোনো মানুষই নিখুঁত নয়। তাহলে আমরা কেন অনুশীলন করব?

জীবন হলো মোবাইলের ‘স্নেক’ গেমের মতো। দৌড়ের ওপর থাকো আর পয়েন্ট অর্জন করো। মনে রেখো, লেজ যত লম্বা হবে, তোমার পতনের আশঙ্কা তত বাড়বে!

মাঝেমধ্যেই আমি তোমাকে একজন ভালো মানুষ হিসেবে কল্পনা করি।

বাহ্, তোমার পারফিউমের গন্ধটা সুন্দর। তাই বলে কি ওটা দিয়ে গোসল করতে হবে?

মাতাল লোকটা বলল, ‘এই যে শুনছ? আমি সূর্য। কারণ, পৃথিবী আমার চারদিকে ঘোরে।’

তুমি বিশ্বাস করো, ছোট ছোট পরিবর্তন তোমার জীবনে ব্যাঘাত ঘটাতে পারবে না। বেশ, ভালো কথা। একদিন ঘরে একটা ছোট্ট মশা ঢুকতে দাও এবং রাতে ঘুমাতে চেষ্টা করো।

আহা, স্বাস্থ্যসেবা যদি বন্দুকের মতো সহজলভ্য হতো!

আমার কাছে কোনো সমাধান নেই। তার মানে এই নয়, আমি সমস্যাটাকে একটা নতুন রূপ দিতে পারব না।

কথার কোনো দাম নেই। যতক্ষণ না পর্যন্ত তুমি একজন উকিলের সঙ্গে কথা বলছ।

একজনের সৃষ্টি চুরি করলে সেটা হয় চৌর্যবৃত্তি। অনেকের সৃষ্টি চুরি করলে হয় ‘গবেষণা’!

এই তো, আমি চলে এসেছি! এবার বলো, আলাদিনের দৈত্যের কাছে তোমার বাকি দুটি চাওয়া কী?

দেখো, আমার সঙ্গে গোলমাল বাধাতে এসো না। আমি কারাতে, কুংফু, মার্শাল আর্ট, জুডো, তায়কোয়ান্দো—এ রকম আরও অনেক ভয়ংকর শব্দ জানি!

‘আমি মোটেই চিৎকার করছি না’—আজ পর্যন্ত এ কথা কেউ ফিসফিস করে বলেনি।

হ্যালো! আমি তোমার নাকটা খুঁজে পেয়েছি। আবারও আমার কাজের মাঝখানে এসে ঢুকে যাওয়ার চেষ্টা করছিল!

No comments:

Post a Comment